Loading...
Breaking News
Home > মিডিয়া দুনিয়া > টপ ১০ বলিউড নায়িকা প্লাস্টিক সার্জারি প্রীতি (ব্রেস্ট ইনহ্যান্সমেন্ট ও লিপজব)

টপ ১০ বলিউড নায়িকা প্লাস্টিক সার্জারি প্রীতি (ব্রেস্ট ইনহ্যান্সমেন্ট ও লিপজব)

মানুষ সুন্দরের পূজারী। গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডের তারকারা এই বিষয়টি জেনেই যেন আরও বেশি আকর্ষণীয় করে তোলেন নিজেদের। নিজেকে আকর্ষণীয় ও সুন্দরী করে তুলতে বিভিন্ন সময়ে অভিনেত্রীরা মেকআপ থেকে শুরু করে শরণাপন্ন হয়েছেন সার্জারি নামক চিকিৎসাবিজ্ঞানের। সম্প্রতি বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী আনুশকা শর্মার লিপজবের সমালোচনা দর্শকদের আগ্রহী করে তুলেছে প্লাস্টিক সার্জারি সম্পর্কে। এবার বলিউডের কয়েকজন অভিনেত্রীর তালিকা দ্য রিপোর্টের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল- যারা নিজেদের সঁপে দিয়েছেন চিকিৎসকের ছুরির নিচে।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া
বলিউডে বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রথমসারির নায়িকা হিসেবে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া সর্বজন স্বীকৃত। তবে, তিনি বোধহয় তার নাক নিয়ে তেমন একটা সন্তুষ্ট ছিলেন না। আর তাই নাককে একটি পারফেক্ট শেপে নিয়ে আসতে করিয়েছিলেন সার্জারি। যদিও তিনি তা অস্বীকার করেন। কিন্তু বলিউডে দীর্ঘদিন আগে এন্ট্রি নেওয়া প্রিয়াঙ্কার নাক এবং এখনকার প্রিয়াঙ্কার নাকে রয়েছে আকাশ-পাতাল তফাৎ। একটু ভালো করে খেয়াল করলেই বিষয়টি চোখে পড়বে সবার।

কঙ্গনা রানাউত
কঙ্গনা রানাউত অবকাশ যাপনে ইতালিতে যান ২০০৯ সালে। তার পর পরই বাতাসে খবর ভাসতে থাকে ইতালিতে গিয়ে লিপজব এবং সিলিকন ইমপ্লিমেন্ট করিয়েছেন এই অভিনেত্রী। যদিও কঙ্গনার মুখপাত্র বিষয়টি অস্বীকার করে জানান, সার্জারির মতো সময়সাপেক্ষ কোনো অস্ত্রোপচার করাননি কঙ্গনা। অন্যদিকে ‘রাসকেল’ ছবির মাধ্যমে এর সত্যতা প্রমাণিত হয়েছে।

নার্গিস ফাকরি
রণবীর কাপুরের বিপরীতে ‘রকস্টার’ সিনেমা দিয়ে বলিউডে প্রবেশের পর দুটো কারণে বরাবরই সমালোচিত হয়েছেন এই তারকা। প্রথমটি অভিনয়ে অদক্ষতা। দ্বিতীয়টি অভিনেতা উদয় চোপড়ার সঙ্গে প্রেম। তবে মজার ব্যাপার হল অন্যসব নায়িকাদের মতো নিজের লিপজবের ব্যাপারটি কখনও লুকাননি নার্গিস। ইন্ডিয়ান সাময়িকী গ্ল্যামশেমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি নিজে স্বীকার করেন যে, ঠোঁটকে আরও আকর্ষণীয় করতেই ঠোঁট ফুলিয়েছেন তিনি।

বিপাশা বসু
সুস্মিতা সেনের দেখানো পথেই হেঁটেছেন বলিউডের অন্যতম আবেদনময়ী বিপাশা বসু। ২০০৩ সালে ‘জিসম’ ছবিটি মুক্তির পর পরই বিপাশা ব্রেস্ট ইনহ্যান্সমেন্ট করান। হঠাৎ করে তার এই পরিবর্তন দর্শকের মনে প্রশ্ন তুললে খোদ বিপাশাই স্বীকার করেন যে, তিনি নিজেকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতেই এই সার্জারির শরণাপন্ন হয়েছেন।

চিত্রাঙ্গদা সিং
অভিনয়ে তিনি দর্শক ও সমালোচক দুই মহলেই সমান গ্রহণযোগ্য। দেখতেও অন্যদের চেয়ে আলাদা। তার শারীরিক গড়ন ও উচ্চতা অনেক অভিনেত্রীর কাছেই অধরা আকাঙ্ক্ষা। তবে, চিত্রাঙ্গদাও আনুশকা শর্মা ও নার্গিস ফাকরির মতো নিজেকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে সাহায্য নিয়েছেন কৃত্রিমতার। তিনিও অন্য সবার মতো লিপজপ করিয়েছেন নিজের বাড়তি আকর্ষণ তুলে ধরতে।

কোয়েনা মিত্র
প্লাস্টিক সার্জারির তালিকায় যে কজন নায়িকা আছেন তাদের মধ্যে নিঃসন্দেহে সবচেয়ে বেশি আলোচিত এবং সমালোচিত ছিলেন কোয়েনা মিত্র। ২০০৯ সালে হঠাৎকরেই সবার চোখে পড়ে নতুন কোয়েনাকে। খটকা লাগে নিশ্চয়ই কিছু একটা করিয়েছেন কোয়েনা। কিন্তু সেটা কী? তিনিও নাকে প্লাস্টিক অস্ত্রোপচার এবং ব্রেস্ট ইনহ্যান্সমেন্ট করান। তবে, তার এই আকর্ষণীয় লাগার কৃত্রিম পন্থাগুলো খুব একটা কাজে লাগেনি। ইন্ডিয়ান একটি সাময়িকী জানায়, তার ক্ষেত্রে ঘটেছে এর উল্টোটাই। তারা জানিয়েছেন, আগের চেয়ে এখন আরও বেশি খারাপ দেখায় এই অভিনেত্রীকে।

শিল্পা শেঠি
দর্শক যদি শিল্পা শেঠির ৯০ দশকের ‘বাজিগর’ সিনেমা আর ২০০০ সালের ‘ধারকান’ নিয়ে পাশাপাশি বসেন তবে নিশ্চিত যে, এই ভাবনা মাথায় ঘুরবে ছবির এই দুজন কী একই ব্যক্তি! ‘ধারকান’ ছবির পরিচালক বার বার শিল্পার প্লাস্টিক সার্জারির কথা স্বীকার করলেও খোদ শিল্পা অস্বীকার করে গেছেন প্রতিবারই। শিল্পার কাছের দুই-একজন অবশ্য বলতে চেয়েছেন, ক্ষতি কী, শিল্পাকে তো দেখতে ভালো লাগছে।

প্রীতি জিনতা
মিষ্টি চেহারা এবং গালে পড়া টোলের জন্য বরাবরই প্রশংসিত নায়িকা প্রীতি জিনতা। ছবিতে নিজেকে সাবলীলভাবে উপস্থাপন এবং নিটোল চেহারা দর্শকের কাছে সব সময়ই প্রিয় ছিল প্রীতির। কিন্তু ২০০৬ সালের কোনো এক সময়ে করণ জোহর পরিচালিত ‘কাভি আলভিদা না কেহনা’য় নতুন চেহারায় আবির্ভূত হন এই অভিনেত্রী। সেই অবতারে প্রীতি দর্শকের কাছ থেকে বেশ ইতিবাচক সাড়াও পান তখন। তবে, পাশাপাশি খবর প্রকাশিত হতে থাকে যে, তারুণ্য ধরে রাখতে বটোক্স ইনজেকশন ব্যবহার করেছেন প্রীতি।

সুস্মিতা সেন
১৯৯৪ সালে মিস ইউনিভার্সের মুকুট জয়ী সুস্মিতা নিজেকে আকর্ষণীয় করে তুলতে শারীরিক কাঠামোয় পরিবর্তন আনতে সিলিকন ইমপ্লিমেন্ট করেন। এ কারণে তাকে ছুরি-কাচির নিচেও যেতে হয়। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হল পুরো বলিউডে সুস্মিতাই প্রথম নায়িকা ছিলেন, যিনি ব্রেস্ট ইনহ্যান্সমেন্ট করান।

শ্রীদেবী
বলিউডে প্লাস্টিক সার্জারি নিয়ে সবচেয়ে মজার ব্যাপারটি ঘটে শ্রীদেবীর সঙ্গে। যেই বয়সে এসে নায়িকারা সাধারণত ভাবতে শুরু করে তাদের ক্যারিয়ার শেষের দিকে। ঠিক সেই সময়টিতে নিজেকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে এই সময়ের অভিনেত্রীদের সঙ্গে পাল্লা দিতেই তিনি হুটহাট করে ব্রেস্ট ইনহ্যান্সমেন্ট করান। মিডিয়াতে ফলাও করে এ প্রসঙ্গে খবর ছাপা হলেও শ্রীদেবী তা অস্বীকার করেন। কিন্তু সার্জারির পর যে পরিবর্তন তা তো আর কাউকে ফাঁকি দেওয়ার মতো কোনো ব্যাপার নয়, অতএব সবার চোখেই পড়েছে ব্যাপারটি।

Comments

comments

Loading...

Check Also

নীল নায়িকা সানি লিওনির ৫ ‘গোপন’ তথ্য

করণজিৎ কউর ভোরা৷ হ্যাঁ, তিনি সকলের পরিচিত সানি৷ সানি লিওন৷ নানা গল্প, নানা বিতর্ক তাঁকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.